যদি এটা করো, তাহলে বেহেশত হারাম হয়ে যাবে। এমন বললে কি হয়?

ফতোয়া নং ১০/১৯৬১

বরাবর,
প্রধান মুফতি সাহেব দা.বা.
কেন্দ্রীয় দারুল ইফতা বাংলাদেশ
তত্ত্বাবধানে- শাইখ যাকারিয়া ইসলামিক রিসার্চ সেন্টার ঢাকা
কুড়াতলী, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯

বিষয়: বেহেশত হারাম হওয়া প্রসঙ্গে

মুহাতারাম, মুফতি সাহেব বিনীত নিবেদন এই যে, এক লোক তার মেয়ের জামাইয়ের সাথে ঝগড়া করে তার স্ত্রীকে বললো, যদি জামাই কোন কিছু আনে, আর যদি তুমি আমাকে দাও তাহলে বেহেশত হারাম হয়ে যাবে।
জনাব এখন জানার ইচ্ছা হলো হারাম হয়ে যাবে কিনা? জানালে ভালো হলো।

নিবেদক
হাবিবুর রহমান
০১৭৩৩৫২৫১৫৮

الجواب باسم ملهم الصدق والصواب

জান্নাত বা জাহান্নামে বান্দা নিজের কৃতকর্মের ভিত্তিতেই প্রবেশ করবে। কারো “জান্নাত হারাম হয়ে যাবে” বলার দ্বারা জান্নাত হারাম হয়ে যায় না।
সুতরাং প্রশ্নোক্ত সুরতে বেহেশত হারাম হয়ে যাবে বলার দ্বারা বেহেশত হারাম হবে না। তবে এমন লাগামহীন বাক্য বলা থেকে বিরত থাকা আবশ্যক।

الأدلة الشرعية

سنن الترمذی:رقم الحدیث: 1489

عن أبي هريرة قال قال رسول الله صلى الله عليه وسلم من حسن إسلام المرء تركه مالا يعنيه .

کتاب المبسوط: 8/143 (رشیدیۃ)

ولو قال: علیہ لعنۃ اللہ أو غضب اللہ، أو أمانۃ اللہ أو عذبہ اللہ بالنار أو حرم علیہ الجنۃ إن فعل کذا، فشيء من ھذا لایکون یمینا، إنما ھو دعاء علی نفسہ قال اللہ تعالی: ویدع الإنسان بالشر دعائہ بالخیر ولأن الحلف بھذہ الألفاظ غیر متعارف،

الفتاوی الھندیۃ: 2/60 (زکریا)

ولو قال : عذبه بالنار ، أو حرم عليه الجنة إن فعل كذا فشيء من هذا لا يكون يمينا كذا في المبسوط .

والله أعلم بالصواب

كتبه
یوسف شاکر
المتمرن بدار الإفتاء والإرشاد المركزية
بمركز الشيخ زكريا للبحوث الإسلامية ، داكا
3/5/1442هـــ
শেয়ার করুন

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *