বন্ধকী বস্তুর যাকাত কার উপর আবশ্যক?

ফতোয়া নং: ১০/১৯৬৭৭

বরাবর,
প্রধান মুফতি সাহেব দা.বা.
কেন্দ্রীয় দারুল ইফতা বাংলাদেশ
তত্ত্বাবধানে- শাইখ যাকারিয়া ইসলামিক রিসার্চ সেন্টার ঢাকা
কুড়াতলী, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯

বিষয়: একটি মাসয়ালার শরয়ী সমাধান প্রসঙ্গে

জনাব! আমি একজনকে ৫ ভরি স্বর্ণ করজ হিসেবে দিয়েছি। তিনি আমাকে এই পরিমাণ স্বর্ণ পরবর্তীতে দিয়ে দিবেন। অতঃপর ঋণগ্রহীতা আমাকে বললো যে,আপনি কিছু টাকা জমা রাখেন তখন আমি বললাম যে,না আমাকে পূর্ণ পাঁচ ভরি স্বর্ণ দিয়ে দেন। বাকি আপনি ঋণগ্রহীতা অমুক ব্যক্তির নিকট টাকাগুলো জমা রাখেন। যখন আপনার পূর্ণ টাকা মিলাতে পারবেন তখন আমাকে স্বর্ণ দিয়েন। আমার এই কথার ভিত্তিতে ঋণগ্রহীতা আমার বিশ্বস্ত ব্যক্তির নিকট কিছু টাকা জমা রাখেন।
এখন আমার প্রশ্ন হলো যে, ঋণগ্রহীতা আমার বিশ্বস্ত ব্যক্তির নিকট জমা স্বরূপ যে টাকা রেখেছেন এই টাকার যাকাত আমাকে দিতে হবে না ঋণগ্রহীতাকে দিতে হবে? শরয়ী সমাধানে আপনার সহযোগিতা কামনা করি।

নিবেদক
উম্মে মিরদাছ
ঢাকা

الجواب باسم ملهم الصدق والصواب

শরয়ী দৃষ্টিতে যাকাতযোগ্য সম্পদের উপর পূর্ণ মালিকানা প্রতিষ্ঠিত থাকলে যাকাত আবশ্যক হয়। অন্যথায় যাকাত আবশ্যক হয় না।

সুতরাং প্রশ্নে বর্ণিত সুরতে আপনার থেকে স্বর্ণ ঋণগ্রহীতা ব্যক্তি আপনার বিশ্বস্ত ব্যক্তির কাছে যে অর্থ জমা রেখেছে তাতে আপনার মালিকানা প্রতিষ্ঠিত হয়নি; বরং তা ওই ঋণগ্রহীতা ব্যক্তির মালিকানাতেই বহাল রয়েছে, ফলে উক্ত টাকায় আপনার উপর যাকাত আসবে না।

الأدلة الشرعية

مجمع البحرين 179 (دار الكتب)

يفترض علي كل مسلم حر مالك لنصاب حولي فاضل عن الحوائج الأصلية.

الجوهرة النيرة 11/285 (الحقانية)

ملكا تاما” يحترز عن ملك المكاتب و المديوب و المبيع قبل القبض لأن الملك التام هو مااجتمع فيه الملك و اليد و أما إذا وجد الملك دون اليد كملك المبيع قبل القبض و الصداق قبل القبض أو وجد اليد دون الملك كملك المكاتب و المديون لا تجب فيه الزكاة.

الفتاوي الهندية 1/233 (دار الفكر)

و منها الملك التام وهو مااجتمع فيه الملك واليد وأما إذا وجد الملك دون اليد…أو وجداليد دون الملك…لا تجب فيه الزكاة.

والله أعلم بالصواب

كتبه
سهيل أحمد
المتمرن بدار الإفتاء والإرشاد المركزية
بمركز الشيخ زكريا للبحوث الإسلامية ، داكا
21/5/1442هـــ
শেয়ার করুন

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *